ধূসরাভ সাত সহেলি | Ashy minivet | Pericrocotus divaricatus

391

ছবি: ইন্টারনেট।

বুদ্ধিদীপ্ত চালচলন। চেহারায়ও বুদ্ধির ছাপ লক্ষ্য করা যায়। স্লিম গড়ন। মায়াবী চেহারা। পতঙ্গভুক পাখি। একাকী কিংবা জোড়ায় বিচরণ করে। ধাতব কণ্ঠে ডাকাডাকি করে। চিরহরিৎ হালকা বনের বাসিন্দা। দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে পরিযায়ী হয়ে আসে। এ ছাড়া দেখা মেলে দক্ষিণ-পূর্ব সাইবেরিয়া, উত্তর-পূর্ব চীন, কোরিয়া, জাপান ও ফিলিপাইনে। বিশ্বে এদের অবস্থান মোটামুটি সন্তোষজনক।

পাখির বাংলা নাম: ‘ধূসরাভ সাত সহেলি’| ইংরেজি নাম: ‘অ্যাশি মিনিভেট’(Ashy minivet)| বৈজ্ঞানিক নাম: Pericrocotus divaricatus| এরা ‘মেটে সহেলি’ নামেও পরিচিত।

প্রজাতির গড় দৈর্ঘ্য ১৮ থেকে ২১ সেন্টিমিটার। ওজন ২০ থেকে ২৮ গ্রাম। স্ত্রী-পুরুষ পাখির চেহারায় সামান্য তফাৎ রয়েছে। পুরুষ পাখির কপাল সাদা। মাথা কালো। ঘাড় ও পিঠ ধূসর। ডানার প্রান্ত পালক ধূসর কালো টান। লেজ কালো-সাদা। গলা সাদা। বুকের নিচে থেকে লেজতল পর্যন্ত ধূসর-সাদা। অপরদিকে স্ত্রী পাখির মাথা, ঘাড় ও পিঠ ধূসর। ডানার প্রান্ত পালক কালো, মধ্যখানে সাদা টান। দেহতল হলদে সাদা-ধূসর। উভয়ের ঠোঁট, চোখ ও পা কালচে।

প্রধান খাবার পোকামাকড়, কীটপতঙ্গ। প্রজনন মৌসুম সাইবেরিয়া অঞ্চলে মে থেকে জুন। তবে অঞ্চলভেদে প্রজনন মৌসুমের হেরফের রয়েছে। কাপ আকৃতির বাসা বাঁধে। উপকরণ হিসেবে ব্যবহার করে সরু লতা, শিকড় ও ঘাস। ডিম পাড়ে দু-তিনটি। ডিম ফুটতে সময় লাগে ১৪-১৫ দিন।

লেখক: আলম শাইন। কথাসাহিত্যিক, কলামলেখক, বন্যপ্রাণীবিশারদ ও পরিবেশবিদ।
সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন, 01/03/2018